গ্রিনল্যান্ড কিনতে চান ট্রাম্প! | সংবাদ

1

স্টাফ রিপোর্টার: গ্রিনল্যান্ড দ্বীপ নিয়ে ইদানীং বেশ কৌতূহলী হয়ে উঠেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
শুধু তাই নয় দ্বীপটিকে কিনতেও আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিনি।
ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল পত্রিকা জানিয়েছে, দ্বীপটি কেনা সম্ভব কি না, সে বিষয়ে অনেকের সঙ্গে আলাপও করেছেন ট্রাম্প। বিষয়টি তলিয়ে দেখতে হোয়াইট হাউসের আইনজীবীদের নির্দেশও দিয়েছেন ট্রাম্প।
এদিকে খবরটি প্রকাশিত হওয়ার ট্রাম্পকে নিয়ে ফের হাসিঠাট্টায় মেতেছে আমেরিকার নেটিজেনরা।
তারা প্রশ্ন তুলেছেন, স্বায়ত্তশাসিত একটি দেশ কীভাবে কেনার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন ট্রাম্প সে প্রশ্ন তুলেছেন তারা।
এ বিষয়ে নিউইয়র্ক পত্রিকা ট্রাম্পের এই আগ্রহকে শিশুসুলভ বলে অভিহিত করেছে।
পত্রিকাটি লিখেছে, দ্বীপটি ডেনমার্ক নামক একটি দেশের অন্তর্গত তা ট্রাম্প জানেন কি? হয়ত না। তাছাড়া ডেনমার্ক গ্রিনল্যান্ড বিক্রিতে আগ্রহী, এমন কথাও শোনা যায়নি।
বিষয়টি নিয়ে স্যাটায়ারে মেতেছেন এমএসএনবিসির জনপ্রিয় উপস্থাপক রেইচেল ম্যাডো।
অনেকটা টিপ্পনি কেটে তিনি বলেছেন, ট্রাম্প নির্ঘাত দ্বীপটিতে একটি গলফ কোর্স বানানোর পরিকল্পনা করছেন।
ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল অনুসারে, গত কয়েক মাসে ট্রাম্প বিভিন্ন অতিথি ও উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলোচনায় তুষারাবৃত প্রায় সাড়ে আট লাখ বর্গমাইলের দ্বীপটি কেনা সম্ভব কি না, তা নিয়ে মতবিনিময় করেছেন।
পৃথিবীর উত্তরভাগের প্রায় সাড়ে আট লাখ বর্গমাইলের তুষারাবৃত্ত দ্বীপটি কিনতে যে বিষয়টি ট্রাম্প উৎসাহিত করেছে তাহলো, দ্বীপটি প্রায় জনশূন্য, কিন্তু বিভিন্ন খনিজ পদার্থে অত্যন্ত সমৃদ্ধ দ্বীপটি।
তাই এটি কেনার ব্যাপারে তাকে উৎসাহ দিয়েছেন কেউ কেউ। এমনটাই জানিয়েছে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

প্রসঙ্গত, উত্তর আটলান্টিক ও উত্তর মহাসাগরের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত স্বায়ত্তশাসিত গ্রিনল্যান্ড দ্বীপ। এই দ্বীপের বেশির ভাগই বরফে আচ্ছাদিত। সূত্র যুগান্তর