মামার পক্ষে ভোট কেন্দ্র গিয়ে দুটি আঙ্গুল হারালো গোলাম রাব্বানী, তবুও হেরে গেলেন মামা

মামার পক্ষে ভোট কেন্দ্র গিয়ে দুটি আঙ্গুল হারালো গোলাম রাব্বানী, তবুও হেরে গেলেন মামা

আজ রবিবার দেশের বেশ কিছু ইউনিয়নের মতো মাদারীপুরের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দাড়িয়েছিলেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর মামা সালাহ উদ্দিন আহমেদ। আর মামার পক্ষে কেন্দ্রে গিয়ে আহত হয়েছেন গোলাম রাব্বানী। তবে এবার তার মামার নির্বাচনের ফলও জানা গেল। তার মামাও চেয়ারম্যান পদে হেরে গেলেন বলে জানা গিয়েছে। এই বিষয়ে বিস্তারিত জানা গেল।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে হারলেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর মামা সালাহ উদ্দিন আহমেদ। রবিবার রাতে এই নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করা হয়। বিকালে মামার পক্ষে ভোট কেন্দ্র গিয়ে হা’ম’লা’র শি’কা’র হন ছাত্রলীগের সাবেক এই সাধারণ সম্পাদক।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চতুর্থ ধাপে রবিবার মাদারীপুরের উপজেলার ৬টি ইউপিতে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। এই নির্বাচনে রাজৈর উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকসুর সাবেক জিএস গোলাম রাব্বানীর মামা সালাহ উদ্দিন আহমেদ। নির্বাচনের আগে বেশ কয়েক দিন থেকেই মামা সালাহ উদ্দিন আহমেদের পক্ষে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় অংশ নিয়েছিলেন গোলাম রাব্বানী। দুপুরে এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আহত হন গোলাম রাব্বানী। এই নির্বাচনে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর মামা সালাহ উদ্দিন আহমেদ পরাজিত হয়েছেন। তবে কত ভোটে পরাজিত হয়েছেন তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

রাতে রাজৈরের ৬টি ইউনিয়নে বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নাননী খান। তিনি ইশিবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থী হিসেবে মোশারফ মোল্লার নাম ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, ইশিবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোশারফ মোল্লাকে বেসরকারী ভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, নির্বাচনে এক ইউনিয়নে সবচেয়ে বেশি ১৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিল ইশিবপুর ইউনিয়নে। রাজৈরের এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয়ভাবে কোন প্রার্থীকে মনোনয়ন প্রদান করেননি। সে কারণে বিজয়ীরা সবাই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হয়েছেন।
এদিকে, মামার পক্ষে কেন্দ্রে গিয়ে দুটি আঙ্গুল হারালো গোলাম রাব্বানী। তাকে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখান থেকে তিনি বলেছেন তাকে শে’ষ করার উদ্দেশ্যে ওই ঘটনা ঘটানো হয়। এমনকি নির্বাচন সম্পর্কে বেশ কিছু অভিযোগ তোলেন তিনি। তবে এবার তার মামা হেরে গিয়েছেন বলে জানা গেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net