নির্বাচনের ‘মাঠে’ ছাড়’ নই এবার মা’য়ের প্রতি’দ্বন্দ্বী মে’য়ে!

নির্বাচনের ‘মাঠে’ ছাড়’ নই এবার মা’য়ের প্রতি’দ্বন্দ্বী মে’য়ে!

এবার নির্বাচনে এবার ‘মায়ের প্রতি’দ্বন্দ্বী হয়ে’ছে মেয়ে। পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলা’র সদর ইউনিয়নে’র ৭, ৮ এবং ৯ নম্বর ‘ওয়ার্ডে সংরক্ষিত সদ’স্য পদে মা জীবন না’হার ও মেয়ে বুলবুলি’ আকতার ‘প্রার্থী হয়েছে’ন। তবে মা-মেয়ের ‘এই ভোটের লড়াই মিশ্র প্র’তিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে ওই’ এলাকায়। অন্য আরে’কটি ওয়ার্ডে জীব’ন নাহারের আরেক মেয়েও সংরক্ষিত ওয়া’র্ডে নির্বাচন করছেন।

। ওই ওয়ার্ডে মোট ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মা-মেয়ের ‘ভোটের লড়াই ভো’টারদের মাঝে চাঞ্চল্যে’র সৃষ্টি করে’ছে

স্থানীয়রা জানান,– ‘জীবন নাহারের স্বামী ওই ইউনিয়নের ভাই’স চেয়ারম্যান ছিলেন। স্বামী মারা যাওয়ার পর তিনি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে পর পর দুইবার নির্বাচিত হন। বর্তমানেও তিনি ইউপি মহিলা সদস্য। এবারও তিনি নির্বাচন কর’ছেন। মা-মেয়ের মধ্যে ‘পারিবারি’ক কোনো দ্বন্দ্বের কথাও শোনেননি ‘কেউই। এবারের ভোটে মেয়ে বুলবুলি হঠাৎ প্রার্থী হয়েছেন। গত বিশ দিন ধরে মা-মেয়ে কেউ কারো বাড়িতে যাচ্ছেন না।

মেয়ে পারথি ইউপি সদস্য হওয়ার শুরু থেকেই আমি তার কাজ করে দেই। তার দায়িত্বগুলো আমি পালন করি। গত নির্বাচনে তিনি ভোটারদের কে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন এবার তিনি প্রার্থী হবেন না।’ আমাকে প্রার্থী করবেন। পারিবারিকভাবেও একাধিকবার আলোচনা হয়েছে। সবাই আমাকে প্রার্থী হওয়ার কথা বলেছে। এখন হঠাৎ করে আমার ভাইয়ের প্ররো’চনায় মা প্রার্থী হয়েছেন। আমার জনপ্রিয়তা আছে, আমি নির্বাচিত ‘হবো।

অন্যদিকে, মা জীবন নাহার মেয়ের অভিযোগ অস্বী’কার করে বলেন, আমি ‘একজন মুরুব্বি। আমার মেয়ে প্রার্থী হবে তা সে’ কখনো জানায়নি। জানালে আ’মি প্রার্থী হতাম না। আমার মে’য়ে তার স্বামীর প্ররোচনায় প্রার্থী হয়েছে’। অসুবিধা নেই, ‘আমি পর পর দুবার নির্বাচি’ত হয়েছি। এবারও হ’বো।

টার্নিং অফিসার ও উ’পজেলা কৃষি কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আ’লম জানান, –একই পরিবারের কয়েকজন প্রার্থী হলেও ভোট গ্রহণের ক্ষেত্রে কোনো বাধ্য বাধকতা নেই

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net