মহাসড়”কে টোল আদা”য়ে সংসদে বি”ল বিলপাস

মহাসড়”কে টোল আদা”য়ে সংসদে বি”ল বিলপাস

মহাসড়ক ও এক্সপ্রেসও”য়ে নির্মাণ, রক্ষণাবেক্ষণ এবং টোল আদায়ে সড়ক ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বিল সংসদে পাস হয়েছে। শনিবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ‘মহাসড়ক বিল-২০২১’ সংসদে পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাসবিলে” বলা হয়েছে, এই আইন অমান্য করলে দুই বছ”র পর্যন্ত কারাদণ্ড,

 

পাঁচ হাজার টাকা থেকে পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত দ”ণ্ড হবে।এর আগে বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই ক”মিটিতে পাঠান এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি করেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।১৯২৫ সালের হাইওয়ে অ্যা”ক্ট রহিত করে মহাসড়ক, নির্মাণ, উন্নয়ন ও ”রক্ষণাবেক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা এবং অবাধ, সুশৃঙ্খল ও নিরাপদ যান চলাচলের জন্য নতুন এ আইন করা ”হচ্ছে।

 

বিলে ”বলা হয়েছে, আই”নের অধীনে গেজেট দিয়ে সরকার বলে দেবে কোন সড়ক বা মহাসড়কে কে প্রবেশ করবে বা কে প্রবেশ করবে না। কোনটি মহাসড়কের সঙ্গে এক্সপ্রেসওয়ে হিসেবেও ঘোষণা করা হবে, পরিচালনা কেমন হবে, কোনগুলোতে টোল নে”য়া হবে।এছাড়া সরকার বা সরকারের ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তি মহাসড়ক উন্নয়ন, মেরামত বা রক্ষণাবেক্ষণ, মহাসড়ক সংশ্লিষ্ট সুয়ারেজ সিস্টেম, ড্রেন, কালভার্ট, সেতু” নির্মাণ ও সংস্কার করবে তাও গেজেট দিয়ে বলে দেয়া হবে।বিলে বলা হয়েছে, জলবায়ু প”রিবর্তনের কারণে সৃষ্ট প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রভাব থেকে মহাসড়কের ”সম্ভাব্য ক্ষতি হ্রাসের জন্য মহাসড়ক নেটওয়ার্কের ঝূঁকিপূর্ণ অঞ্চলগুলো চিহ্নিত করে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব সহনশীল টেকসই অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে।

 

 

পাস হওয়া বিলে বলা হয়েছে, নির্ধারিত মাশুল প্রদান সাপেক্ষে নাগরিক সেবাপ্রদানকারী সরকারি, বাধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর” ইউটিলিটি সংযোগ মহাসড়কের প্রান্তসীমা বরা”বর স্থাপন করা যাবেতবে শর্ত থাকে যে, ম”হাসড়কের উন্নয়ন, মেরামত বা রক্ষণাবেক্ষণের সময় প্রয়োজন হলে ওই ইউলিটি সংযোগগুলো সেবা প্রদানকারী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিজ খরচে নির্দিষ্ট সময়ে অধি”দপ্তরের তত্ত্বা”বধানে স্থানান্ত”র করবেমহাসড়ক নি”র্মাণ, মেরা”মত ও রক্ষণাবেক্ষণের সময়” এ”ই কাজের জন্য নিয়োজিতদের ব্যক্তি ও মহাসড়ক ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা কীভাবে নিশ্চিত করতে হবে তা বলে” দেয়া হয়েছে।”

 

 

বিলে মহাসড়”ক বা সড়কের স্থাবর, অস্থা”বর সম্পত্তি, অবৈধ দখল বা প্রবেশমুক্ত রাখার জন্য কী করণীয় হবে এবং সার্ভে করার জন্য কতদূর পর্যন্ত মানুষের বাড়ি পর্যন্ত ঢুকতে পারবে, সেসব বিষয়ে ব”লা হয়েছে”।পাস হওয়া বিলে বলা হয়েছে, ফসল, খড় বা অন্য কোনো পণ্য শুকানো বা অনুরূপ কোনো কাজে মহাসড়ক ব্যবহার করা যাবে না।

 

 

মহাসড়কের নির্ধারিত ”স্থা”ন ব্যতীত” অন্য কোনো স্থান দিয়ে পদযাত্রা করা যাবে না বা অনুমোদিত স্থান ছাড়া অন্য কোনো স্থানে অবস্থান করা যাবে না।বিলে বলা হয়েছে, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অনুমতি ছাড়া মহা”সড়কে কোনো বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড, তোরণ বা অনুরূ”প কিছু ”টাঙানো বা স্থাপন করা যাবে ”না। ধীর গতিসম্পন্ন যানগুলো মহাসড়কের ”নির্ধারিত লেন ছা”ড়া অন্য ”কোনো লেন ব্যবহার করতে পারবে না

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net