বাংলাদেশের এলিট এরা কতখানি অমানুষ সেটার আরেকটা প্রমাণ পেলাম লণ্ডনে গিয়ে – DoNews24|

বাংলাদেশের এলিট এরা কতখানি অমানুষ সেটার আরেকটা প্রমাণ পেলাম লণ্ডনে গিয়ে – DoNews24|

বাংলাদেশের অনেকেই প্রবাসে বসবাস করছেন দীর্ঘদিন ধরেই। বিশেষ করে বাংলাদেশের অর্থনিতীর একটি বড় চালিকা শক্তি হচ্ছে এই প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স। প্রবাসে অনেকের উপার্জন অনেক রকম। কেউ করে থাকেন ভালো ইনকাম আবার কেউ স্বল্প। তবে দীর্ঘ দিন ধরে যারা বসবাস করছেন তারা হয়েছেন এলিটধারী। এ দিকে এই এলিটধারীদের নিয়েই নিজের একটি লেখনি লিখেছেন পিনাকী ভট্টাচার্য। পাঠকদের উদ্দেশে তার সেই লেখনি তুলে ধরা হলো হুবহু:-

আমি গতবার লণ্ডনে গিয়ে একটা ইন্টারেস্টিং স্টোরি শুনলাম। বাংলাদেশের এলিট এরা কতখানি অমানুষ সেটার আরেকটা প্রমাণ পেলাম।
লোকটা একজন ডাক্তার, বাংলাদেশ থেকে পাশ করা, আমাদের বেশ সিনিওর। লণ্ডনের বাঙালি কমিউনিটির একজন কেউকেটা। তার লেটেস্ট প্রতারণাটা অভিনব।

সে একটা মানি ট্রান্সফার এজেন্সি খুলেছে। মানি ট্রান্সফার করে, ভালো রেট দেয়। সার্ভিস ও ভালো। সব বাঙালি তাদের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠাতে লাগলো। খেয়াল রাখবেন এদের অনেকেরই বৈধ কাগজপত্র নাই। একদিন হঠাৎ তারা আবিষ্কার করলো টাকা পাঠিয়েছে কিন্তু নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাবার পরেও টাকাটা দেশে পৌছেনি। এজেন্সিতে খোজ নিলো, এজেন্সি আশ্বস্ত করলো টাকা পেয়ে যাবে একটু সিস্টেমে সমস্যা হয়েছে। আরো কয়েক সপ্তাহ গেলো। তারপরে এজেন্সি সবাইকে জানালো তারা এজেন্সি বন্ধ করে দিচ্ছে যারা টাকা জমা দিয়েছে কিন্তু এখনো ট্রান্সফার হয়নি ফান্ড তারা যেন তাদের ব্যাংক একাউন্ট রেসিডেন্স পারমিট বা পাসপোর্ট ও আইডেন্টিটি কার্ড নিয়ে যেন নির্ধারিত ফর্মে আবেদন করে।

বুঝতেই পারছেন বিশাল অংশের বাংলাদেশীর বৈধ কাগজ নাই। তারা তাদের টাকা ক্লেইম করতে পারলোনা। রক্ত ঘাম করা প্রবাসীদের কয়েক মিলিয়ন পাউন্ড এভাবেই মেরে দিলো সেই এলিট। তাদের কোন গ্লানি নেই, কোন হইচই নেই। ভিক্টিমেরা কেউ কারো কাছে অভিযোগ জানাতে পারলোনা। কীভাবে একটা মানুষ যে কিনা দুর্দশায় আছে, তাকেও আরো দুর্দশায় ফেলে সেইটাকে এনক্যাশ করে এরা!! তবে এরাই বাংলাদেশের এলিট, এরাই বাংলাদেশের মাথা, এরাই বাংলাদেশের শিক্ষিত শ্রেণী, এরাই দেশপ্রেমিক, এরাই দেশে গিয়ে ভোটে দাঁড়ায়।
আর আমরা হচ্ছি দেশদ্রোহী।
প্রসঙ্গত, পিনাকি ভট্টাচার্য বাংলাদেশের একজন বিশিষ্ট লেখক এবং সাহিত্যিক। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি লেখালেখির সাথে যুক্ত রয়েছেন। তার পড়াশুনার স্থান ছিল রাজশাহী বিশ্ব বিদ্যালয়। বর্তমানে তিনি প্রবাসে রয়েছেন স্থায়ী ভাবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net