পুতিনের ধমকে হার্ট অ্যাটাক রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

পুতিনের ধমকে হার্ট অ্যাটাক রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

যুদ্ধের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর শারিরীক অবস্থার আরো অবনতি হওয়ায় রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগুকে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিশেষ ঘনিষ্ঠ এই মন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা উদ্বেগজনক বলে জানিয়েছে ব্রিটেনের সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল।
গুঞ্জন রয়েছে, ইউক্রেনে অভিযান শুরুর দুই সপ্তাহ পরও কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জিত না হওয়ায় প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ধমক খেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু।

পুতিনের সঙ্গে বরারই ভাল সম্পর্ক ছিল শোইগুর। কিন্তু ইউক্রেন যুদ্ধের পর হালে তাদের সম্পর্কে ফাটল দেখা দিয়েছে বলে গুঞ্জন উঠেছে। গত প্রায় এক মাস ধরে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। তার মধ্যে ইউক্রেন আক্রমণের পর রাশিয়ার ২০ জন আর্মি জেনারেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
আমেরিকার গোয়েন্দা বাহিনীর দাবি, ইউক্রেনে রাশিয়ার বেশ কয়েকটি অভিযান ব্যর্থ হয়েছে। ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভকে কিছুতেই কব্জায় আনতে পারছে না রুশ সেনারা। একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, বেশ কিছু বিষয়ে পুতিন ও শোইগুরের মতপার্থক্য প্রকাশ্যে আসছিল। তার মধ্যেই জানা গেল, গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ৬৬ বছর বয়সি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।

গত ২৪ ফেব্রুযারি রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণের মাত্র দুদিন আগে পুতিনের একটি ভিডিও বার্তা নেটমাধ্যমে ঘুরপাক খাচ্ছিল। তাতে পুতিন রুশ গোয়েন্দা প্রধানকে ডোনেৎস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন হিসেবে স্বীকৃতির বিষয়ে স্পষ্ট অবস্থান জানাতে বলেছিলেন। পুতিন চেয়েছিলেন সেনাপ্রধান এবং গোয়েন্দা প্রধান, সবাই তার সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে বিবৃতি দেবেন।
কিন্তু এর কয়েক দিন পরই ভাইরাল হওয়া আর একটি ছবিতে দেখা যায় একটি বৈঠকের সময় প্রেসিডেন্ট পুতিন এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী শোইগু একে অন্যের থেকে বেশ খানিকটা দূরে বসে আছেন। স্বাভাবিক ভাবে এ নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

কূটনীতি বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, ইউক্রেনের বিষয়ে রাশিয়ার অভ্যন্তরীণ বৃত্তে কোনও অস্পষ্টতা চাননি পুতিন। কিন্তু রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে ইউক্রেন আক্রমণ নিয়ে তেমন কোনও মন্তব্য করতেই শোনা যায়নি। যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী প্রেসিডেন্টের শিকারে যাওয়ার সময়ও তাকে সঙ্গ দিতেন, প্রায়শই তাদের একসঙ্গে দেখা যেত, অদ্ভুত ভাবে গত কয়েক সপ্তাহ সেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে প্রকাশ্যে দেখা যাচ্ছিল না।
গত ১১-২৩ মার্চ পর্যন্ত প্রকাশ্যে ছিলেন না রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু। তবে ২৪ মার্চ রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের প্রকাশিত একটি ভিডিওতে খুব অল্প সময়ের জন্য দেখা যায় তাকে। এরপর আর তাকে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি।

সেসময়, পুতিনের ধমক খেয়ে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর হার্ট অ্যাটাক হয়েছে বলে দাবি করেছিলেন ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপদেষ্টা আন্তন গেরাশচেঙ্কো। এক ফেসবুক স্ট্যাটসে এমনটি দাবি করেন তিনি।
ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপদেষ্টা ফেসবুকে লিখেছিলেন, ইউক্রেনে লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থতার জন্য ধমকের সুরে কঠোর অভিযোগ আনেন পুতিন। আর এর পরেই শোইগুর হার্টঅ্যাটাক হয়েছিল।
২০১২ সালে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হন শোইগু। তার আগে প্রায় এক দশক রুশ সেনাবাহিনীকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। এমনকি ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া দখলের সময়ও তিনিই নেতৃত্বে ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net