সরকারের হস্তক্ষেপ চায় র‍্যাব

সরকারের হস্তক্ষেপ চায় র‍্যাব

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী (সেক্রেটারি অব স্টেট) অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনকে চিঠি দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমস্যার সমাধানে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) আবেদনের প্রেক্ষিতেই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এই চিঠি দেয়া হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই র‍্যাব বিভিন্নভাবে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা পেয়ে এসেছে। সংস্থাটির চাওয়া এই সহযোগিতামূলক সম্পর্ক বহাল থাকুক।

উল্লেখ্য, করোনাকালীন সময়ে র‍্যাব দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অসুস্থ ব্যক্তিদের যে হেলিকপ্টারে বহন করেছে, সেটিও যুক্তরাষ্ট্র থেকে কেনা। বেল ৪০৭ নামের হেলিকপ্টারটি ২০১২ সালে কেনা হয়। ২০১৮ সাল পর্যন্ত এই হেলিকপ্টারের খুঁটিনাটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে ১৪ জন কর্মকর্তা যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন।

এছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে জঙ্গিবাদ দমন ও মাদক অভিযানে ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন গোয়েন্দা সরঞ্জাম, বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ও মাদক শনাক্ত করার জন্য সরঞ্জামও যুক্তরাষ্ট্র থেকে কেনা হয়েছে।
এসব পরিস্থিতি বিবেচনায় র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) ও সংস্থাটির সাবেক-বর্তমান সাত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বিবেচনার জন্য মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেনকে অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেনকে লেখা চিঠিতে আব্দুল মোমেন এ অনুরোধ জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারের আশাবাদ ব্যক্ত করার পাশাপাশি সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দমন ও মাদকবিরোধী কর্মকাণ্ডে র‍্যাবের ভূমিকার কথা চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে র‍্যাব ও সংস্থাটির সাবেক-বর্তমান সাত কর্মকর্তার ওপর গত বছরের ১০ ডিসেম্বর নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসে পৃথকভাবে এই নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট (রাজস্ব বিভাগ) ও পররাষ্ট্র দপ্তর।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net