প্রেমিকাকে কুপিয়ে খুন! রক্ত দিয়ে লেখা- ‘তুমি কাছে থাকলে এমন হত না”

প্রেমিকাকে কুপিয়ে খুন! রক্ত দিয়ে লেখা- ‘তুমি কাছে থাকলে এমন হত না”

প্রেমিকা এবং তাঁর ‘শাশুড়িকে খুন। খুনের কার’ণও রক্ত দিয়ে লিখে আত্মঘাতী যুবক। ‘চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঢাকা থেকে ১০০ কি’লোমিটার দূরের টাঙ্গাইলের  কাশতলা গ্রাম। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে খুনে ব্যবহৃত ছুরি এবং হাতুড়ি বাজেয়াপ্ত করেছে।

শনিবার এক’ই বাড়ি থে’কে বছর পঁয়ষট্টির জমেলা বেগম,

‘তাঁর পুত্রবধূ সু’মির দেহ উদ্ধার হয়। সেখান থেকেই মেলে কা’লিহাতী উপজেলার সাতুটিয়া পূর্ব’পাড়ার বাসিন্দা শাহজালালের দেহও। তাঁদের দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়। একই জায়গা থেকে সুমির বছর পাঁচেকের ছেলে শাফিকে জখম অবস্থা’য় উদ্ধার ‘করা হয়। তবে পেশার স্বার্থে দেহ উদ্ধা’রের মতো ঘটনা কমপক্ষে পুলিশের কাছে নতুন নয়। তবে যে ঘর থেকে দেহ তিনটি উদ্ধার হয় সেই ঘরের দেওয়ালের দিকে নজর যেতে হতচকিত হয়ে যান ত’দন্তকারীরা। কারণ দেওয়ালে লেখা ছিল, “এমনটা হত না যদি আমার সু’মি আমার কাছে থাকত।

এ’সবের জন্য’ দায়ী’ সুমির বাবা’

একই বা’ড়ি থেকে তিনটি দেহ উদ্ধার এবং দেওয়ালে এই লেখা দেখার পর এলাকায় হইচই শুরু হয়ে যায়। স্থানীয়রা জানান, সুমির স্বামী জয়েনউদ্দিন কর্মসূত্রে সৌদি আরবে থাকেন। স্বামীর অনুপস্থিতিতে শাহজালালের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে সুমির।

তা মাত্র কয়েক’দিনেই জানাজানি হয়ে যায়। তাতে বাধা দিতেন সুমির শাশুড়ি জানতে পারার পর সুমির বাবাও বাধা দেন। তবে পরকীয়ার টানে বাড়ি ছেড়ে একবার চলেও গিয়েছিলেন সুমি। স্বামী সৌদি আরব থেকে ফেরার পর’ স্ত্রীকে বাড়ি নিয়ে’ আসেন। তারপর আবারও সৌদি’ আরবেই চলে যান তিনি। স্বামী দেশ ছাড়া’র সঙ্গে সঙ্গেই ফের শাহজালা’লের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ওই গৃহবধূ।

প্রাথমিক তদন্তে ‘পুলিশের অনুমান, পরকীয়া সম্পর্কে টানাপোড়েনের জে’রে শাহজালাল ওই মহিলা’ এবং তাঁর শাশুড়ি’কে খুন করেছেন। খুনের পরই আত্মঘাতী হয়েছেন শাহজালাল। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ছুরি ও হাতুড়ি উদ্ধা’র করেছে।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net