যুক্তরাষ্ট্র ‘অবাধ্য’ ইমরান খানকে শাস্তি দিতে চেয়েছিল : রাশিয়া

যুক্তরাষ্ট্র ‘অবাধ্য’ ইমরান খানকে শাস্তি দিতে চেয়েছিল : রাশিয়া

পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ‘নির্লজ্জ হস্তক্ষেপের আরেকটি প্রচেষ্টা’র নিন্দা করেছে রাশিয়া। সেই সঙ্গে বলেছে, একজন ‘অবাধ্য’ ইমরান খানকে শাস্তি দিতে চেয়েছিল ওয়াশিংটন।
রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, রাশিয়া লক্ষ করেছে যে প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি ৩ এপ্রিল সে দেশের প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শের পাশাপাশি এর আগের ঘটনাগুলোর অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে সংসদ ভেঙে দিয়েছেন।

মারিয়া জাখারোভা আরো বলেছেন, চলতি বছরের ২৩-২৪ ফেব্রুয়ারি ইমরান খানের মস্কো সফরের ঘোষণার পরপরই যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের পশ্চিমা সহযোগীরা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ওপর অশোভনীয় চাপ সৃষ্টি করতে শুরু করে।

এমনকি সফরটি বাতিল করারও দাবি জানিয়েছিল।
তিনি আরো বলেছেন, ‘যদিও তিনি (ইমরান খান) আমাদের কাছে এসেছিলেন, (লু) ওয়াশিংটনে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে ডেকেছিলেন এবং অবিলম্বে সফরটি স্থগিত করারও দাবি জানিয়েছিলেন; সেটাও প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল। ‘

তিনি আরো বলেন, ‘পাকিস্তানি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে- চলতি বছরের ৭ মার্চ পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূত আসাদ মজিদের সঙ্গে এক কথোপকথনে উচ্চপদস্থ একজন মার্কিন কর্মকর্তা (সম্ভবত একই ব্যক্তি- অর্থাৎ ডোনাল্ড লু) ইউক্রেনের ঘটনায় পাকিস্তানি নেতৃত্বের ভারসাম্যপূর্ণ প্রতিক্রিয়ার তীব্র নিন্দা করেছেন। এটা স্পষ্ট করে দেন যে ইমরান খানকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিলেই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে অংশীদারত্ব সম্ভব। ‘

রুশ কর্মকর্তা মনে করেন, এসব বিবেচনায় ইমরান খানকে শাস্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। মারিয়া বলেছেন, একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য নির্লজ্জ মার্কিন হস্তক্ষেপের আরেকটি প্রয়াস এটি। উপরিউক্ত ঘটনাগুলো স্পষ্টভাবে তার সাক্ষ্য বহন করে।
সূত্র : ডন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net