নড়বড়ে অবস্থানে ভারত

নড়বড়ে অবস্থানে ভারত

কোয়াড গ্রæপে থাকা দেশগুলোর মধ্যে শুধু ভারতই ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর আগ্রাসন ঘিরে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ‘কিছুটা নড়বড়ে’ অবস্থানে রয়েছে। কারণ, রাশিয়া ও পশ্চিমাদের সঙ্গে সম্পর্কের ভারসাম্য বজায় রাখার চেষ্টা করছে ভারত। ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর আগ্রাসন ঘিরে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ভারতের অবস্থান নিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে। কোয়াডের অন্য দেশগুলো হলোÑ যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও অস্ট্রেলিয়া। তারা বিভিন্ন ক্ষেত্রে রাশিয়া বা দেশটির বিভিন্ন ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলেও ভারত এখন পর্যন্ত কোনো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি। এমনকি, রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিন্দাও জানায়নি তারা। বাইডেন বলেছেন, ‘কোয়াডের মধ্যে জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার প্রতিক্রিয়া অনেক কঠোর। পুতিনের আগ্রাসনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা। এক্ষেত্রে শুধু ভারত ব্যতিক্রম ভ‚মিকা পালন করছে এবং তারা কিছুটা নড়বড়ে।’

এদিকে, প্রতিষ্ঠানের সাইবার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা অবিলম্বে শক্তিশালী করার জন্য মার্কিন ব্যবসায়ী নেতাদের সতর্কবার্তা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ইউক্রেন-রাশিয়া ইস্যুতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে সাইবার হামলা চালাতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি। ওয়াশিংটনে স্থানীয় সময় সোমবার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক ত্রৈমাসিক গোলটেবিল সভায় এমন সতর্কবার্তা দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সংবাদমাধ্যম সিএনএনের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে।

রাশিয়ার অত্যাধুনিক সাইবার ক্ষমতা রয়েছে উল্লেখ করে বাইডেন বলেন, ‘বিষয়টি হলো তার (পুতিন) সেই সক্ষমতা রয়েছে। তিনি এখনও এটি ব্যবহার না করলেও হাতে রেখে দিয়েছেন। সিএনএন এ খবর জানায়। অপর এক খবরে বলা হয়, বিগত কয়েক বছর ধরেই আমেরিকার সঙ্গে সামরিক ও কৌশলগত সম্পর্ক মজবুত করছে ভারত। বিশেষ করে চীনকে নজরে রেখে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, জাপান ও ভারতের কোয়াড বা চতুর্দেশীয় অক্ষ যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। কিন্তু পুরোন বন্ধু রাশিয়ার ক্ষেত্রে আমেরিকার চাপ সত্বেও আপোস করতে নারাজ মোদি সরকার। রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের উপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা সত্বেও মস্কোর সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্কে কাটছাঁট করেনি সাউথ বøক।

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, চলতি মাসের শুরুর দিকেই বৈঠকে বসেছিল কোয়াড গোষ্ঠী। সেখানে ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সরব হয় আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া ও জাপান। তবে সরাসরি মস্কোর বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য না করে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুধু তাই নয়, স¤প্রতি মার্কিন নিষেধাজ্ঞা সত্বেও রাশিয়া থেকে অপরিশোধিত তেল কিনছে ভারত। এবং এই বিষয়ে আমেরিকাকে ইঙ্গিতে বার্তা দিয়ে নয়াদিল্লি স্পষ্ট জানিয়েছে, দেশের জ্বালানি সংক্রান্ত বিষয়ে রাজনীতি মেনে নেওয়া হবে না। সিএনএন, টাইমস নাউ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net