রুশ হামলায় বন্ধ হলো ইউরোপের বৃহত্তম ইস্পাত কারখানা

রুশ হামলায় বন্ধ হলো ইউরোপের বৃহত্তম ইস্পাত কারখানা

রাশিয়ার আক্রমণে ইউরোপের অন্যতম বৃহত্তম ইস্পাত কারখানা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। রোববার ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বিষয়টি জানিয়েছেন। ১৯৪১ সালের পর এই প্রথম সম্পূর্ণভাবে কারখানার উৎপাদন বন্ধ হলো। সংবাদ সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
ইউক্রেনের সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ‘রাশিয়ার সেনাবাহিনী ইউক্রেনের বন্দর শহর মারিউপোল অবরোধ করায় ইউরোপের বৃহত্তম লোহা ও ইস্পাত শিল্পের মধ্যে অন্যমত একটি প্রতিষ্ঠান অ্যাজভস্টাল মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ইউক্রেনের পার্লামেন্ট সদস্য লেসিয়া ভ্যাসিলেঙ্কো এক টুইটে লিখেছেন, ‘ইউরোপের বৃহত্তম ধাতব উৎপাদন কারখানাগুলোর একটি ধ্বংস হয়ে গেছে। এটি ইউক্রেনের জন্য এক বিশাল অর্থনৈতিক ক্ষতি। পরিবেশও মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’ ভ্যাসিলেঙ্কো তাঁর টুইটে একটি বিস্ফোরণের ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেখানকার বিল্ডিংগুলো থেকে ধূসর ও কালো ধোঁয়া উঠতে দেখা যায়।

ভ্যাসিলেঙ্কোর এক সহকর্মী সেরহি তারুতা এক ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন- ‘রাশিয়ার সেনাবাহিনী ‘কারখানাটি কার্যত ধ্বংস করে ফেলেছে।’
এদিকে, অ্যাজভস্টালের মহাপরিচালক এনভার স্কিটিশভিলি এক টেলিগ্রাম বার্তায় প্রতিষ্ঠানটি কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নির্দিষ্ট করে উল্লেখ না করে বলেছেন, ‘আমরা আবার শহরে ফিরে যাব, আমাদের প্রতিষ্ঠাটি পুনর্নির্মাণ ও পুনরুজ্জীবিত করব।’ এর আগে ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘হামলা’ শুরুর দিকে কারখানাটি ক্ষতিগ্রস্ত হলে তা কমিয়ে আবারও উৎপাদনে যায় প্রতিষ্ঠানটি।

অ্যাজভস্টাল ইউক্রেনের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি রিনাত আখমেতভের মালিকানাধীন মেটিনভেস্ট গ্রুপের অংশ। রুশপন্থী বলে পরিচিত আখমেতভ যুদ্ধ শুরুর পর রাশিয়ার সৈন্যরা ইউক্রেনে ‘মানবতা বিরোধী অপরাধ’ করছে বলে অভিযুক্ত করেছেন। সূত্র : এএফপি

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net