যে কো’ন ম’ন্ত্রীর মে’য়েও তাঁকে বিয়ে করতে রাজি -দাবি করেন ‘গায়ক নোবেল ‘

যে কো’ন ম’ন্ত্রীর মে’য়েও তাঁকে বিয়ে করতে রাজি -দাবি করেন ‘গায়ক নোবেল ‘

দাম্পত্য  জিবনে নোবেল খুশি নন  তা যেন  স্পষ্ট হয়ে আছে। কারণ- ইতিমধ্যেই বাংলাদেশের বিতর্কিত সংগীত ‘শিল্পী মইনুল ‘আহসান নোবেলকে  বিচ্ছেদের নোটিস পাঠিয়েছেন তাঁর স্ত্রী “সালসাবিল”। এ প্রসঙ্গে তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে উষ্মা প্রকাশ করলেন নোবেল। টাকার লোভে নোবেলকে তাঁর স্ত্রী খুন করার চেষ্টা করেছিল বলেও অভিযোগ তার। তবে আবারও বিয়ে করার পরিকল্পনা  করচেন নোবেলের। তিনি  দাবি করেন- তিনি আবার নতুন করে জীবন ঠা সাজাবেন। তবে এবার যেন সুন্দরী ভাল কোনও মেয়েকে বিয়ে করবেন। তার দাবি যে মন্ত্রীর মেয়েও তাঁকে বিয়ে করতে রাজি বলেই দাবি  গায়কের।

 

তাদের পরিচয়ের মাস ৩ এক এর মধ্যে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন নোবেল ও সালসাবিল। ২০১৯ সালের ১৫ নভেম্বর”সালসাবিলের “সঙ্গে বিয়ে হয় নোবেলের। বিয়ের ৬ মাস কাটতে না কাটতেই সুখের সংসারে ফাটল ধরে। সালসাবিলের অভিযোগ, শুরু হয় অত্যাচার। এমনকী অন্য নারীর প্রতিও আকৃষ্ট হতে শুরু করেন নোবেল।  নোবেলের সঙ্গে দাম্পত্য সম্পর্ক যে মোটেও সুখের নয়, তা পরে সকলেই জেনে ফেলেন। বছর খানেক আগেই নোবেলের বিরুদ্ধে গুলশন থানায় অভিযোগও দায়ের করেছিলেন তার স্ত্রীর।এরই মাঝে স্ত্রীর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত পোস্ট করেন নোবেল। তাঁর দাবি- অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর ফেসবুকে পোস্ট করার কিছুক্ষণের মধ্যেই সালসাবিল নাকি গর্ভপাতের হুমকি দেন নোবেবে ১.৫বছরের বৈবাহিক জীবনে খুব কম সময়ই সালসাবিল তাঁর সঙ্গে ছিলেন তিনি। তবে সেই সময় সংসার কোনওদিন হয়তো হবে বলেই পোস্টে আশাপ্রকাশ করেছিলেন  নোবেল।

 

তবে বাস্তবে  সংগীত শিল্পীর ভাবনার সঙ্গে মিলল না। স্ত্রীর দাবি, -বছরের পর বছর মানসিক এবং শারীরিক নির্যাতন সহ্য করতে পারছেন না। তাই গত ১১ সেপ্টেম্বর বাধ্য হয়ে নোবেলকে বিচ্ছেদের নোটিস পাঠান তিনি। বিচ্ছেদের নোটিস পাওয়ার কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন নোবেল। ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘ডিভোর্স’ । বিচ্ছেদের নোটিস হাতে পেলেও মোটেও বিচলিত নন বলেই দাবি করেন নোবেল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net