স্বামী এসে দেখেন স্ত্রী ফোনে কথা বলছে, এরপর হত্যা!

স্বামী এসে দেখেন স্ত্রী ফোনে কথা বলছে, এরপর হত্যা!

মাদারীপুরের শিবচরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে স্ত্রীকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী রেজ্জাক তালুকদারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরকীয়া সন্দেহে স্ত্রী আয়শা আক্তারকে রেজ্জাক হত্যা করে বলে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, চরশ্যামাইল গ্রামের খালেক তালুকদারের ছেলে অটোচালক রেজ্জাক তালুকদার ও তার ২য় স্ত্রী আয়শা আক্তারের (৩০) সঙ্গে পারিবারিক কলহ নিয়ে প্রায়ই ঝগড়া হতো। দুজনই পরকীয়া সম্পর্কে জড়িত বলে সন্দেহ করতেন।

সোমবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে স্বামী রেজ্জাক তালুকদার এসে স্ত্রী আয়শাকে মোবাইলে কথা বলতে দেখেন। রেজ্জাক এসে কার সাথে আয়শা কথা বলছে দেখতে চান। রেজ্জাক আয়শার মোবাইল নেওয়ার চেষ্টা করলে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে রেজ্জাক কাপড় কাটার কেচি দিয়ে আয়শার পেটে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই আয়শার মৃত্যু হয়।
শিবচর থানার ওসি মো. মিরাজ হোসেন বলেন, ‘রেজ্জাককে ধরতে রাতভর অভিযান চালানো হয়েছে। পারিবারিক কলহ,পরকীয়ার সন্দেহ নিয়ে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে সে স্বীকার করেছে। ’

শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘হাসপাতালে আনার আগেই ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে। তার পেটে ও নাকের উপরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। অধিক রক্তক্ষরণেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে ধারালো অস্ত্রটি ছুরি হতে পারে। ’

সহকারী পুলিশ সুপার (শিবচর সার্কেল) মো. আনিসুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার রেজ্জাককে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীর জন্য মাদারীপুর পাঠানো হয়েছে।

kalerkantho

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net