বিশ্ব নবীর মেরাজের ঘটনা জানুন?

বিশ্ব নবীর মেরাজের ঘটনা জানুন?

মেরাজের ঘটেছিল এটা বিশ্বাস করা মুসলমানদের অবিচ্ছেদ্য অংশ। পবিত্র কোরআ’নেও মেরাজের ক’থা বর্ণনা হয়ে’ছে, কোরআনকে সম্পূর্ণরূপে স্রষ্টার বাণী হিসেবে বিশ্বাস করে। বিশদ বর্ণনা বিভিন্ন হাদিস-এ-রাসুল (দ:) -এ এসেছে। বিশদ বর্ণনা নিয়ে হয়তো মতভেদ থাকতে পারে, কিন্ত মেরাজ যে হয়েছিল এটা বিশ্বাস করা ইসলামে আবশ্যিক করা হয়েছে।

 

আমরা হাদিসে মেরাজের যে বর্ণনা পাই, তা নিম্নরূপ:-

এটা দুনিয়ার হিসেবে একরাতের মধ্যে হয়েছিল, মানে যাওয়া আর ফিরে আসা এক রাতের মধ্যে, কিন্ত প্রকৃত সময় কত লেগেছিল, তা অজানা। এখানে কি সময়ের আপেক্ষিকতা কাজ করেছিল? হতে পারে।
মেরাজের একটা অংশ দুনিয়াতে সীমাবদ্ধ ছিল। মহানবী (দ:) -কে মক্কা থেকে জেরুজালেম নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।
মেরাজের সময় ভূমিকা পালন করেছিলেন ফেরেশতা জিবরাইল (আ:) আর বাহন ছিল বোর্রাক নামক একটা অস্তিত্ব
যা ছিল ঘোড়া বা গাধা সদৃশ ছিল।

মেরাজে মহানবী (দ:) ‘আসমান’ -এ পৌঁছান। আসমানের সাতটা লেয়ার বা তলা। তিনি একে একে সব তলা অতিক্রম করে (বিভিন্ন লেভেলে বিভিন্ন নবীগণ (আ:) এর সাথে সাক্ষাত হয়) সপ্তম আসমানে ওঠেন । যার পর হচ্ছে আল্লাহ্‌ তা’লার আরশ। তখন মহানবী (দ:) একাই অগ্রসর হন। মহানবী (দ:) আল্লাহ্‌ তা’লার একেবারে নিকটবর্তী হয়েছিলেন, তাঁর সাথে কথা বলেছিলেন, মানে বিভিন্ন বিষয়ে এরশাদ হয়েছিল।
পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ও এক মাস রোজার বিধান এই মেরাজের মাধ্যমে এসেছিল।মেরাজের সময় মহানবী (দ:) এর সাথে অন্যান্য বিভিন্ন নবিদের (আ:) সাক্ষাৎ হয়েছিল।
মেরাজ ঘটেছিল আরবী রজব মাসের সাতাশ তারিখের রাতে যা প্রতি বছর শবে মেরাজ হিসেবে পালিত হয়

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net